১৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ । ৩ আশ্বিন, ১৪২৫

খোকসার আসিফের আবিস্কার ‘ফায়ার ফাইটিং রোবট’

নিজস্ব প্রতিবেদক | এপ্রিল ২৪, ২০১৮ - ৮:৫৯ অপরাহ্ণ

কোথাও আগুন লাগলে মুহূর্তেই টের পাবে যন্ত্রটি আবার নির্দিষ্ট দূরত্ব থেকে পানি প্রবাহের মাধ্যমে আগুনকে নেভাতে সক্ষম হবে আশ্চর্য এই যন্ত্র। আশ্চর্য এই যন্ত্রটি ‘ফায়ার ফাইটিং রোবট’। আর এই জিনিসটি আবিস্কার করে সবাইকে তাক লাগিয়ে দিলো খোকসার কৃতিমুখ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইলেকট্রিক্যাল এন্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ১৬-১৭ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র হুমায়েত আসিফ।

এই ফায়ার ফাইটিং রোবটের মূলভিত্তি আরডুইনো। আগুন চিহ্নিত করার জন্য এটাতে ফায়ার সেন্সর বা ফ্লেম সেন্সর মডিউল ব্যবহার করা হয়েছে। আমরা জানি, কোথাও যখন আগুন জ্বলে তখন সেখান থেকে আই আর (অবলোহিত) রশ্মি নির্গত হয়। আর এই রশ্মি কে ফায়ার সেন্সর রিসিভ করে। সেন্সরগুলিকে এমনভাবে স্থাপন করা হয়েছে যাতে যেদিকেই আগুন জ্বলুক না কেনো রোবটটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সেদিকে ঘুরে যেতে পারে। এরপর রোবটটি আগুনের অবস্থান নির্ণয় করে প্রয়োজন মতো পানি প্রবাহের মাধ্যমে আগুন নিভাতে সক্ষম।

হুমায়েত আসিফের বাসা খোকসার শোমসপুর রেলস্টেশনের পাশে। তরুণ এই বিজ্ঞানীর বাবা সাহেব আলী একজন বেসরকারি চাকরিজীবী এবং মা নাম আয়েশা খাতুন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক।

ছোটবেলা থেকেই বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্সের প্রতি তার ঝোঁকটা একটু বেশিই ছিল বলে জানান তার মা আয়েশা খাতুন।

হুমায়েত আসিফ তার রোবট তৈরির বিষয়ে বলেন, “আগামী বিশ্ব পুরোপুরিভাবে রোবোটিক্সের উপর নির্ভরশীল হবে। আগামী বিশ্বের তাল মিলিয়ে চলতে এটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। এটি এমন একটি রোবট যেটি কোন চালক ছাড়া সমস্ত কাজটি নিজেই সম্পন্ন করে। এটিরই পরবর্তী সংস্করণ হচ্ছে ড্রোন। যেখানে আসলে ফায়ার সার্ভিসিং এর গাড়ি পৌঁছানো সম্ভব না, যেমন কোনো বস্তির ভিতর কিংবা উঁচু কোন বিল্ডিং এ, সেখানে ড্রোনটি আগুন চিহ্নিত করে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যাবে এবং পানি দিয়ে আগুন নেভাতে সক্ষম হবে।”

  1. হুমায়েত আসিফের তৈরিকৃত ফায়ার ফাইটিং রোবটের ইউটিউব ভিডিও দেখুন:

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য দিন

সর্বশেষ
পঞ্জিকা
সেপ্টেম্বর ২০১৮
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি
« আগ    
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  
ছবি গ্যালারি