১৮ ডিসেম্বর, ২০১৭ । ৪ পৌষ, ১৪২৪

‘বাবা সম্পত্তি দিয়ে যায়নি কিন্তু আমাকে সম্পদ বানিয়ে গেছেন’ঃমমতাজ

নিজস্ব প্রতিবেদক | অক্টোবর ১১, ২০১৭ - ৭:১৩ অপরাহ্ণ

‘গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে জন্ম নিয়ে বাবার কাছ থেকে কোনো সম্পত্তি পাইনি। গরিব বাবা সম্পত্তি দিয়ে যাননি, তবে আমাকে সম্পদ বানিয়েছেন। মা ঘরে বসাতে চাইতেন। বাবা আমাকে স্বাধীন করে দিতেন। বাবা জানতেন, আমি গানের জগতেই ভালো থাকব। ভালো আছি, স্বাধীন আছি’ এভাবেই নিজের বেড়ে ওঠার গল্প বলছিলেন বাউল সম্রাজ্ঞী ও জাতীয় সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম।

বুধবার আন্তর্জাতিক কন্যা দিবস উপলক্ষে রাজধানীর কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মমতাজ বেগম এভাবেই তার জীবনের গল্প বলেন। ব্র্যাক, অ্যাসিড সারভাইভারস ফাউন্ডেশন এবং অস্ট্রেলিয়ান হাইকমিশনার এ সভার আয়োজন করে।

মমতাজ বেগম বলেন, আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে শ্রম এবং সাধনা করলে সফলতা আসবেই। পুরুষশাসিত সমাজে এগিয়ে যাওয়া নারীর জন্য কষ্টকর বটে। তবে সাধনা থাকলে কেউ দমাতে পারে না। আমার এ জীবনে যত পথ হেঁটেছি, তা অনেক পুরুষই হাঁটতে পারেনি। দিনের পর দিন বাবার হাত ধরে গানের আসরে গিয়েছি। বাবার অর্থ ছিল না। আবার অনেক জায়গায় গাড়িও চলত না। কাদা-পানি, ঝড়-বৃষ্টির মধ্যেই মাইলের পর মাইল হাঁটতে হয়েছে। কষ্ট করেছি বলেই ভক্তদের হৃদয়ে জায়গা করে নিতে পেরেছি। সাধনা করেছি বলেই সম্মান পেয়েছি। আজকের এ সম্মান কারও দয়ায় নয়, করুণায় নয়। এ সম্মান সাধনার মাধ্যমে অর্জন করেছি।

ব্র্যাক জেন্ডার জাস্টিস অ্যান্ড ডাইভারসিটির পরিচালকের সভাপতিত্বে সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অস্ট্রলিয়ান হাইকমিশনার স্যালী-এ্যান ভিনসেন্ট, মনোবিজ্ঞানী ড. মেহতাব খানম এবং আইন ও সালিশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক শিপা হাফিজ।

সংসদ সদস্য মমতাজ বলেন, পোশাকে পরিবর্তন আনলেই নারীর স্বাধীনতা মেলে না। পুরুষশাসিত সমাজের মানসিকতায় পরিবর্তন না আসলে নারীর সম্মান মিলবে না। নারীরাও মানুষ-এ চেতনা জাগ্রত হলেই নারীর মুক্তি মিলবে।

বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীর উদ্ধৃতি দিয়ে তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু বলতেন তিনি বাঙালি, মুসলমান এবং মানুষ। নারী-পুরুষ নয় পথ চলা হোক মানুষ পরিচয়ে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রশংসা করে তিনি আরও বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট পরিবারের সবাইকে হারিয়ে তার (শেখ হাসিনা) পাগল হয়ে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি শোককে শক্তিতে রূপান্তরিত করে আজ বিশ্ব নেতা। তিনি আত্মবিশ্বাসী মানুষের অহংকার। তিনি এগিয়ে যাওয়া মানুষের দিশারি।

অনুষ্ঠানে অদম্য সাহসিকতায় এগিয়ে যাওয়ার গল্প শুনিয়ে শামীমা আক্তার, আমিনা খাতুন নীলা, লিলিমা খাতুন, শাবানা আক্তার, তুলি দেবনাথ ও মুক্তার আক্তার মৌ পুরস্কার লাভ করেন।

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য দিন

সর্বশেষ
পঞ্জিকা
ডিসেম্বর ২০১৭
রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহঃ শুক্র শনি
« নভে    
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
৩১