ট্রাক-কাভার্ডভ্যান ধর্মঘট আর আবারো বৃদ্ধি পেলো এলপিজি ও অটোগ্যাসের দাম।

ডিজেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর প্রতিবাদে আগামীকাল শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে সারাদেশে ট্রাক-কাভার্ডভ্যান ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়েছে। জ্বালানি তেলের বর্ধিত এ দাম না কমানো পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে বলেও পণ্য পরিবহন সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

দুপুরে, বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) বাংলাদেশ আন্তঃজেলা ট্রাকচালক ইউনিয়নের সভাপতি তাজুল ইসলাম এ ধরনের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানিয়েছেন, জ্বালানি তেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর প্রতিবাদে মালিক এবং চালকেরা মিলে এ ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তেলের বর্ধিত দাম প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত কার্যকর থাকবে।

ট্রাক-কাভার্ডভ্যান ধর্মঘট image source : The Business Standard
ট্রাক-কাভার্ডভ্যান ধর্মঘট

একইসময়ে বাংলাদেশ হোসেন মো. মজুমদার, ট্রাক-কাভার্ডভ্যান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক জানিয়েছেন, যে হারে ডিজেলের দাম বাড়ানো হয়েছে, তাতে পরিবহন চালানো আমাদের পক্ষে সম্ভব নয়। হঠাৎ ডিজেলের এ দামবৃদ্ধির কোনো যৌক্তিকতা নেই।

ডিজেলের দাম বাড়ানোয় সড়ক পরিবহনে পণ্য ও যাত্রী ভাড়া বাড়ানোর জন্য চাপ দিচ্ছেন পরিবহন মালিকরা। এ নিয়ে বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) প্রধান কার্যালয়ে বৈঠক হতে পারে। এদিকে ডিজেলের দামবৃদ্ধির প্রতিবাদে গণপরিবহন বন্ধ রাখার ইঙ্গিত দিয়েছেন ঢাকা সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি। তবে এ বিষয়ে এখনো সাংগঠনিক কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানানো হয়েছে।

এদিন দুপুরে মুঠোফোনে খন্দকার এনায়েত, সমিতির সাধারণ সম্পাদক  উল্যাহ জানিয়েছেন, ডিজেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর জন্য এই জোর প্রতিবাদে তারা গণপরিবহন চালু রাখতে রাজি নন।

ট্রাক-কাভার্ডভ্যান ধর্মঘট ] 

তিনি বলেছেন, জ্বালানি তেলের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানো হয়েছে হঠাৎ।এমনটি ইতিহাসে এর আগে  কখনো হয়নি। এখন তেলের দাম এত পরিমানে বাড়ানোর প্রতিবাদে বিভিন্ন পরিবহন কোম্পানির মালিকেরা জানাচ্ছেন, তারা শুক্রবার হতে আর গণপরিবহন চালাবেন না। আমরা এখন পর্যন্ত ধর্মঘট বা গণপরিবহন বন্ধ রাখার বিষয়ে সাংগঠনিক কোনো সিদ্ধান্ত নিইনি। তবে একটি চিঠির মাধ্যমে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষকে (বিআরটিএ) বিষয়টি জানানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার (৩ নভেম্বর) রাতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়। নতুন দাম ভোক্তা পর্যায়ে ৬৫ টাকা হতে বেড়ে গিয়ে ৮০ টাকা করা হয়েছে। রাত ১২টা থেকে এ দাম কার্যকর হয়।ওই বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আন্তর্জাতিক বাজারে জ্বালানি তেলের দাম ঊর্ধ্বগতির কারণে ভারতসহ বিশ্বের অন্যান্য দেশ তেলের দাম সমন্বয় করছে। গত ১ নভেম্বর ভারতে ডিজেলের বাজার মূল্য লিটার প্রতি ১২৪ দশমিক ৪১ টাকা বা ১০১ দশমিক ৫৬ রুপি ছিল। আর বাংলাদেশে ডিজেলের মূল্য প্রতি লিটার ৬৫ টাকা অর্থাৎ ৫৯ দশমিক ৪১ টাকা কম।

এতে আরও বলা হয়েছে, বর্তমান ক্রয় এর মূল্যর কথা বিবেচনা করে বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশন (বিপিসি) ডিজেলে প্রতি লিটারে ১৩ দশমিক ০১ টাকা কমে বিক্রি করছে।

অপরদিকে লিটার প্রতি ৬ দশমিক ২১ টাকা কমে ফার্নেস অয়েল বিক্রি করছে ।প্রতিদিন এর ফলে করে প্রায় ২০ কোটি টাকার মত লোকসান দিচ্ছে বিপিসি।

গত অক্টোবর মাসে বিভিন্ন গ্রেডের পেট্রোলিয়াম পণ্য বর্তমান যে দাম আছে তাতে, সরবরাহ করায়,মোট ৭২৬ কোটি ৭১ লাখ টাকা বাংলাদেশ পেট্রোলিয়াম করপোরেশনের  লোকসান হয়েছে বলে জ্বালানি আর খনিজ সম্পদ বিভাগ এর থেকে জানানো হয়েছে।

 

এ প্রেক্ষাপটে ডিজেল আর কেরোসিনের দাম পুনর্নির্ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে সংবাদ বিজ্ঞপ্তি এর মধ্যে বলা হয়, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের, ২২ ডিসেম্বর ২০০৮ সালের  জারি করা প্রজ্ঞাপন এবং সংশোধনীসহ এ সংক্রান্ত জারি করা  অন্যান্য সকল বিষয় অপরিবর্তিত থাকবে। সর্বশেষ বাংলাদেশে ২০১৬ সালের ২৪ এপ্রিল গেজেট প্রকাশনার মাধ্যমে জ্বালানি তেলের দাম কমানো হয়েছিল।

আরো জানুন :

বাংলাদেশের খবর : ১২ হতে ১৭ বয়স এর শিক্ষার্থীদের টিকাদান চলছে এবং কমলো পেঁয়াজের দাম।

আবারো বৃদ্ধি পেলো এলপিজি ও অটোগ্যাসের দাম।

এলপিজি গ্যাস Copyright free image form Wikimedia commons
চিত্র: এলপিজি গ্যাস

আবারও বেড়েছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস (এলপিজি) ও পরিবহনের জ্বালানি হিসেবে ব্যবহৃত এলপিজি দাম। এতে ১২ কেজি সিলিন্ডারের দাম ১ হাজার ২৫৯ টাকা থেকে বেড়ে হয়েছে ১ হাজার ৩১৩ টাকা।

যদিও চলতি নভেম্বর মাসের জন্য বেসরকারি পর্যায়ে মুসকসহ প্রতি কেজি এলপিজি ১০৪ টাকা ৯২ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১০৯ টাকা ৪২ পয়সা করেছে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। এর ফলে ১২ কেজির সিলিন্ডারের দাম এক হাজার ২৫৯ টাকা থেকে বেড়ে এক হাজার ৩১৩ টাকা করা হলো। বাড়লো সিলিন্ডার প্রতি ৫৪ টাকা। আজ (৪ নভেম্বর) থেকেই এই দাম কার্যকর হবে।

বাসাবাড়িতে কেন্দ্রীয়ভাবে নিয়ন্ত্রিত,নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, (রেটিকুলেটেড প্রতি) এলপিজির দাম প্রতি কেজি ১০১ টাকা ৬৮ পয়সা  হতে বাড়িয়ে ১০৬ টাকা ১৯ পয়সা করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) রাজধানীর কাওরান বাজারে বিইআরসি আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে নতুন এই দাম ঘোষণা করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে কমিশনের চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল, সচিব রুবিনা ফেরদৌসী, সদস্য মকবুল ই ইলাহি, আবু ফারুকসহ অন্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, অক্টোবরে এলপিজি মুসকসহ প্রতিকেজি ৮৬ টাকা ৭ পয়সা থেকে বাড়িয়ে ১০৪ দশমিক ৯২ টাকা করেছিল বিইআরসি। এর ফলে ১২ কেজির সিলিন্ডারের দাম অক্টোবর মাসে এক হাজার ৩৩ টাকা হতে বেড়ে এক হাজার ২৫৯ টাকা হয়; এই দাম কার্যকর করা হয় ১০ অক্টোবর থেকে। আজকের সম্মেলনে জানানো হয়, একইসঙ্গে বেড়েছে পরিবহনে ব্যবহৃত এলপি গ্যাসের দামও, যা অটোগ্যাস নামে প্রচলিত। নভেম্বর মাসের জন্য অটোগ্যাসের দাম প্রতি লিটার ৫৮ দশমিক ৬৮ থেকে বাড়িয়ে ৬১ টাকা ১৮ টাকা নির্ধারণ করা হয়। লিটারে বেড়েছে প্রায় ২ টাকা ৫০ পয়সা। অক্টোবরেই বেড়েছিল ৮ টাকা ১২ পয়সা।

সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, সৌদি সিপি অনুসারে সেপ্টেম্বরের তুলনায় অক্টোবরে প্রোপেন ও বিউটেনের দাম যথাক্রমে প্রতি টন ৮৭০ এবং ৮৩০ ডলার, মিশ্রণ অনুপাত ৩৫:৬৫ বিবেচনায় নভেম্বরে জন্য এই নতুন এই সকল মূল্য নির্ধারণ করা হয়েছে; যা অক্টোবরে ছিল যথাক্রমে প্রতি টন ৭৯৫ ডলার এবং ৮০০ ডলার। গত ১০ অক্টোবর এক অনলাইন সংবাদ সম্মেলনে বিইআরসির চেয়ারম্যান মো. আবদুল জলিল মূসকসহ ১২ কেজি এলপিজির দাম এক হাজার ৩৩ টাকা থেকে বাড়িয়ে এক হাজার ২৫৯ টাকা করার কথা জানান। এর আগে গত ২৯ জুলাই ১২ কেজি সিলিন্ডারের এলপিজি মূসকসহ ৮৯১ থেকে ১০২ টাকা বাড়িয়ে ৯৯৩ টাকা করা হয়।পূর্বে গত ১২ কেজি সিলিন্ডারের  এলপিজি মূসকসহ ৮৯১ থেকে ১০২ টাকা বাড়িয়ে ৯৯৩ টাকা করা হয়।

 

আরো জানুন :

উইকিপিডিয়া : তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাস

বাংলাদেশের খবর সাইটটি ব্যবহার করায় আপনাকে ধন্যবাদ। আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে চাইলে “যোগাযোগ” আর্টিকেলটি দেখুন, যোগাযোগের বিস্তারিত দেয়া আছে।